অন্যান্য

ওয়াইজ একাউন্টের ফি বা চার্জ সমূহ নিয়ে বিস্তারিত

ওয়াইজ এর ফি/চার্জ সমূহ নিয়ে বিস্তারিত

একাউন্ট খোলার পর ওয়াইজ একাউন্ট ভেরিফিকেশন এবং ৮ টি দেশের ব্যাংক একাউন্ট পাওয়ার জন্য ২০ ডলার লোড করতে হয়। যদিও এই টাকা সাথে সাথে উইথড্র করা যায়। ভেরিফিকেশন না হলেও। একাউন্টে ফান্ড লোড ফি: মার্কেট প্লেস যেমন আপওয়ার্ক থেকে ওয়াইজে ট্রান্সফারে কোন ফি আপওয়ার্ক কিংবা ওয়াইজের কোন চার্জ নেই। যেখানে পেওনিয়ার নিদিষ্ট ফি কাটে অথবা …

ওয়াইজ এর ফি/চার্জ সমূহ নিয়ে বিস্তারিত Read More »

ক্লায়েন্ট ফান্ড রিসিভ করবেন যেভাবে

ওয়াইজে যেকোনো দেশের ক্লায়েন্ট থেকে ফান্ড রিসিভ করার নিয়ম

ওয়াইজ আপনাকে ৮ টি দেশের ব্যাংক একাউন্ট দিবে এবং এই লিস্ট দিন দিন বাড়বে, ব্যাংক একাউন্ট নিয়ে বিস্তারিত এখানে। যদি আপনার ক্লায়েন্ট এমন দেশের হয় যে যাদেরে কারেন্সিতে ওয়াইজ ব্যাংক একাউন্ট পাওয়া না যায় সেক্ষেত্রে ক্লায়েন্ট নিজে ওয়াইজ একাউন্ট ওপেন করে ওয়াইজ টু ওয়াইজ ট্রান্সফার করবে। আপনার ক্লায়েন্ট যদি বাংলাদেশের মত দেশের হয় যারা রাষ্ট্রীয় …

ওয়াইজে যেকোনো দেশের ক্লায়েন্ট থেকে ফান্ড রিসিভ করার নিয়ম Read More »

পেপ্যাল থেকে ওয়াইজে ফান্ড ট্রান্সফার সম্ভব?

জ্বি বাংলাদেশে পেপ্যাল যারা ব্যবাহার করেন তার ওয়াইজ থেকে পাওয়া ব্যাংক একাউন্ট নাম্বার ব্যবহার করে ফান্ড ট্রান্সফার করতে পারবেন। তবে অনেক সময় প্রথমে পেপাল ওয়াইজের দেওয়া ব্যাংক কাউন্ট এ্যাড করতে গেলে এরর দেখাতে পারে। তবে ১ সপ্তাহ পর পর ট্রাই করবেন। ওয়াইজ ব্যাক ডিটেউলস পেপাল রিকোগনাইজ করতে অনেক সময় ২ মাস পর্যন্ত লাগতে পারে। তবে …

পেপ্যাল থেকে ওয়াইজে ফান্ড ট্রান্সফার সম্ভব? Read More »